করোনা ভাইরাসের আক্রমণ আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের আযাব-গজবেরই অংশ, যা বিশ্ববাসীর জন্য বিশেষ সতর্কবার্তা। আমীর, ইসলামী সমাজ।

“ইসলামী সমাজ” এর আমীর হযরত সৈয়দ হুমায়ূন কবীর বলেছেন, মানুষের দুনিয়ার জীবনে কল্যাণ, শান্তি ও আখিরাতের জীবনে জাহান্নাম থেকে রক্ষা পেয়ে জান্নাত লাভের লক্ষ্যেই সার্বভৌম ক্ষমতার একমাত্র মালিক সৃষ্টিকর্তা আল্লাহ মানব জাতির সমাজ ও রাষ্ট্রসহ সমগ্র জীবন গঠন এবং পরিচালনার জন্য কল্যাণকর জীবন ব্যবস্থা ‘ইসলাম’ প্রদান করেছেন। ইসলামের বিপরীত মানব রচিত কোন ব্যবস্থাই আল্লাহর কাছে গ্রহণযোগ্য নয়। ইসলামের মূল বিষয়- মানুষের সমাজ ও রাষ্ট্র গঠন এবং পরিচালনাসহ জীবনের সকল ক্ষেত্রে- “সার্বভৌমত্ব, আইন-বিধান ও নিরংকুশ কর্তৃত্ব একমাত্র আল্লাহর, মানুষের নয়”। ফলে “দাসত্ব, আইনের আনুগত্য ও উপাসনা একমাত্র আল্লাহর, অন্য কারো নয়” এবং এরই বাস্তবায়নে “শর্তহীন আনুগত্য- অনুসরণ ও অনুকরণ একমাত্র হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) এর অন্য কারো নয়”। এসবই ইসলামের মৌলিক বিষয়- একথার উল্লেখ করে তিনি বলেন, মুসলিম উম্মাহসহ বিশ্বের মানুষ দীর্ঘকাল পর্যন্ত সমাজ ও রাষ্ট্র গঠন এবং পরিচালনায় মানব রচিত ব্যবস্থা মেনে চলার মাধ্যমে তারা তাদের স্বাধীন জীবনে মানুষের সার্বভৌমত্ব, আইন-বিধান ও কর্তৃত্বের অধীনে বন্দি হয়ে মানুষেরই মনগড়া সংবিধানের আনুগত্য স্বীকারের মাধ্যমে মানুষের দাসত্ব ও গাইরুল্লাহর উপাসনা করছে বিধায়; তাদের অবস্থান ইসলামের বাহিরে তথা জাহিলিয়্যাতে।
আজ ১০ই মে ২০২০ইং রোজ রবিবার সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনের রাস্তায় করোনা ভাইরাসের আক্রমণসহ আল্লাহ্ রাব্বুল আলামীনের সকল প্রকার আযাব-গজব থেকে বাঁচতে করণীয় বিষয়ে “আহবানমূলক প্রচার এবং প্রচারপত্র বিলির” কার্যক্রম উদ্বোধন করার সময় “ইসলামী সমাজ” এর আমীর সৈয়দ হুমায়ূন কবীর বলেন, মানব রচিত ব্যবস্থার মাধ্যমে সমাজ ও রাষ্ট্রের ক্ষেত্রে আল্লাহর পরিবর্তে মানুষের সার্বভৌমত্ব, আইন-বিধান ও কর্তৃত্ব মেনে মানুষেরই মনগড়া আইনের আনুগত্য স্বীকার করে বিশ্বের মানুষ আল্লাহর সাথে কুফর ও শির্কে লিপ্ত হয়ে আছে। কুফর ও শির্কের অধীনে থেকে মানবতা ও নৈতিকতা বিরোধী অপরাধসহ বিভিন্নরকম পাপ কাজ করতে থাকার কারণেই তাদের উপর আল্লাহ্ রাব্বুল আলামীন করোনা ভাইরাস নামক আযাব-গজব পাঠিয়েছেন, এটা মূলতঃ তাঁরই পক্ষ থেকে বিশ্ববাসীর প্রতি বিশেষ সতর্কবার্তা। আল্লাহ রাব্বুল আলামীনই তাঁর দেয়া আযাব-গজব উঠিয়ে না নিলে মানুষের পক্ষে এর মোকাবেলা বা প্রতিরোধ করা সম্ভব নয়। তাই আযাব-গজব থেকে বাঁচতে এর মোকাবেলা ও প্রতিরোধ করার চিন্তাধারা থেকে বের হয়ে সকলকে দৃঢ় বিশ্বাসের সাথে ঘোষণা করতে হবে- “সার্বভৌমত্ব, আইন-বিধান ও নিরংকুশ কর্তৃত্ব” একমাত্র আল্লাহ্র, মানুষের নয় এবং অঙ্গীকার করতে হবে- “দাসত্ব, আইনের আনুগত্য ও উপাসনা” একমাত্র আল্লাহ্র, অন্য কারো নয় এবং “শর্তহীন আনুগত্য- অনুসরণ ও অনুকরণ” একমাত্র হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) এর, অন্য কারো নয় এবং এসব বিষয়ের উপর দৃঢ় থেকে “দুর্নীতি-সন্ত্রাস, শোষন- জুলুম ও সকল প্রকার উগ্রতা মুক্ত সমাজ ও রাষ্ট্র গঠনে”- আল্লাহর রাসূল হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ)এর প্রদর্শিত শান্তিপূর্ণ পদ্ধতিতে আল্লাহরই সার্বভৌমত্বের অধীনে তাঁরই আইন-বিধানের প্রতিনিধিত্বকারী আমীরের নেতৃত্বের আনুগত্যে, নিজের সময় ও অর্থ কুরবানির মাধ্যমে সমাজ ও রাষ্ট্রে ‘ইসলাম’ প্রতিষ্ঠার আন্তরিক প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে এবং কুরআন ও সুন্নাহ্ অনুযায়ী যথাযথভাবে ইসলামের বিধি-বিধান মেনে চলতে হবে। নিজের কৃত সকল অপরাধের জন্য আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের নিকট ক্ষমা প্রার্থনা করতে হবে। সলাত ও কুরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে আল্লাহর’ই বিশেষ রহমত ও সাহায্য লাভের জন্য কুরআন ও সুন্নাহর আলোকে দোয়া এবং সর্বাবস্থায় মহান রবের সন্তুষ্টির জন্য ধৈর্য ধারন করতে হবে। এটাই কল্যাণ ও মুক্তির পথ। সকলকে তিনি কল্যাণ ও মুক্তির পথ গ্রহণের এবং “করোনা ভাইরাস” নামক আযাব-গজবের প্রেক্ষিতে সতর্কতা অবলম্বনে- স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহবান জানন।

মানবতার কল্যাণে বার্তাটি শেয়ার করুন-

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *