ধর্ষণ, গুম ও খুন ইত্যাদি মানবতা বিরোধী অপরাধ বেড়ে চলার মূল কারণ- মানব রচিত ব্যবস্থা। আমীর, ইসলামী সমাজ।

“ইসলামী সমাজ” এর আমীর হযরত সৈয়দ হুমায়ূন কবীর দেশে চলমান নৈরাজ্যময় পরিস্থিতিতে উদ্বেগ ও দুঃখ প্রকাশ করে বলেছেন, সমাজ ও রাষ্ট্র পরিচালনায় মানব রচিত ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত থাকার কারণেই গুম, খুন, ধর্ষণ দিন দিন বেড়েই চলছে। মানব রচিত ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত রেখে নতুন নতুন আইন তৈরি করে এসব সমস্যার সমাধান কখনো হয়নি, হবেও না।
ইসলামী সমাজের উদ্যোগে আজ- ১১-১০-২০২০ ইং, সকাল ১০ টায় ইসলামী সমাজের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত কর্মী সম্মেলনে মানুষের সার্বভৌমত্ব, আইন-বিধান ও কর্তৃত্বকে কুফর ও শিরক উল্লে¬খ করে ‘ইসলামী সমাজ’ এর আমীর সৈয়দ হুমায়ূন কবীর বলেন, কুফর, শিরক প্রতিষ্ঠিত থাকলে আল্লাহর আযাব-গজব এবং অশান্তির মাত্রা বৃদ্ধি পায়। ধর্ষন, গুম ও খুন আল্লাহর আযাব-গজবেরই অংশ। এভাবে চলতে থাকলে দেশ ও জাতি ধ্বংশ হয়ে যাবে।

সংগঠনের আমীর সৈয়দ হুমায়ূন কবীর বলেন, সমাজ ও রাষ্ট্র পরিচালনায় সৃষ্টিকর্তা আল্ল¬াহ প্রদত্ত জীবন ব্যাবস্থা ইসলাম প্রতিষ্ঠাই সকল সমস্যার একমাত্র সমাধান। “ইসলামী সমাজ” আল্লাহর রাসূল হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর প্রদর্শিত শান্তিপূর্ণ পদ্ধতিতে সমাজ ও রাষ্ট্রে ইসলাম প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, দেশ ও জাতির এ নাজুক পরিস্থিতিতে কোন ঈমানদার ও মানবতাবাদী ব্যাক্তি নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করতে পারেনা, তাই তিনি সকল জাতীয় নেতৃবৃন্দ, বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ এবং দেশবাসী সকলকে একমাত্র আল্লাহর সার্বভৌমত্ব, আইন-বিধান ও নিরংকুশ কর্তৃত্বের নিকট পূর্ণ আত্মসর্মপনের মাধ্যমে সকল প্রকার সীমালংঘন মূলক অপতৎপরতা ত্যাগ করে কল্যাণ ও শান্তির পথে আসার এবং সকল মানুষের কল্যাণে সমাজ ও রাষ্ট্র পরিচালনায় সৃষ্টিকর্তা আল্ল¬াহ প্রদত্ত জীবন ব্যবস্থা ইসলাম প্রতিষ্ঠায় ‘ইসলামী সমাজ’এ শামিল হওয়ার উদাত্ত আহবান জানান।

মানবতার কল্যাণে বার্তাটি শেয়ার করুন-

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *