সমাজ ও রাষ্ট্রে আল্লাহ্ প্রদত্ত জীবন ব্যবস্থা ইসলামের আইন-বিধান প্রতিষ্ঠা হলেই মানুষের জীবনে সু-শাসন ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠিত হবে। আমীর, ইসলামী সমাজ।

ইসলামী সমাজের আমীর হজরত সৈয়দ হুমায়ূন কবীর বলেন, গণতন্ত্র ও রাজতন্ত্রসহ সকল প্রকার মানব রচিত ব্যবস্থাই চরম দুর্নীতি। বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল রাষ্ট্রই বর্তমানে দুর্নীতির ভিত্তিতে গঠিত ও পরিচালিত বিধায় বিশ্বের মানুষ দুর্নীতির রাহু গ্রাসে নিমজ্জিত। মানব রচিত ব্যবস্থার ভিত্তিতে নেতৃত্বদানকারী সকল নেতা বা সরকার চরম দুর্নীতিবাজ বিধায় এ সকল নেতাদের নেতৃত্বে দুর্নীতির মাত্রা ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। মানুষের জীবনে সু-শাসন ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা, মানুষের মৌলিক অধিকার আদায় ও সংরক্ষণ এবং তাদের সকল সমস্যার সমাধানের জন্য সমাজ ও রাষ্ট্র পরিচালনায় আল্লাহর সার্বভৌমত্বের ভিত্তিতে তাঁরই আইন-বিধানের প্রতিনিধিত্বকারী নেতার নেতৃত্বে সকল ধর্মের লোকদের জন্য যার যার ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলার সুযোগ রেখে সৃষ্টিকর্তা আল্লাহ প্রদত্ত জীবন ব্যবস্থা ইসলামের আইন-বিধান প্রতিষ্ঠা হওয়া প্রয়োজন।

ইসলামী সমাজের উদ্যোগে জনাব আকিক হাবিবুজ্জামানের সভাপতিত্বে জাতীয় প্রেসক্লাব অডিটরিয়াম, ঢাকায়- ইসলামী সমাজের কেন্দ্রীয় নেতা জনাব সোলায়মান কবীরের পরিচালনায় “মানুষের জীবনে সু-শাসন ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে তাদের সকল অধিকার আদায় ও সংরক্ষণের উপায়” বিষয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সংগঠনের আমীর বলেন, সমাজ ও রাষ্ট্র পরিচালনায় মানব রচিত ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত রেখে মানুষের জীবনে সু-শাসন, ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা এবং দুর্নীতি, সন্ত্রাস ও শোষন মুক্ত সমাজ গঠন সম্ভব নয়। শান্তিপূর্ণ কর্মসূচীর মাধ্যমে আল্লাহর রাসূল হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) এর প্রদর্শিত পদ্ধতিতে সমাজ ও রাষ্ট্রে আল্লাহ প্রদত্ত জীবন ব্যবস্থা ইসলামের আইন-বিধান প্রতিষ্ঠিত হলেই মানুষের জীবনে “সু-শাসন, ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা এবং দুর্নীতি, সন্ত্রাস ও শোষন মুক্ত” সমাজ গঠিত হবে- এটাই মানুষের মৌলিক অধিকারসহ সকল অধিকার আদায় ও সংরক্ষনের একমাত্র উপায়। তিনি বলেন, ‘ইসলামী সমাজ’ একমাত্র আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের লক্ষ্যে তাঁরই রাসূল হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) এর প্রদর্শিত শান্তিপূর্ণ পদ্ধতিতে সমাজ ও রাষ্ট্র পরিচালনায় ইসলামের আইন-বিধান প্রতিষ্ঠার আন্তরিক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এটাই দুনিয়ায় কল্যাণ, শান্তি এবং আখিরাতে মুক্তির একমাত্র পথ। ইসলামী সমাজের আমীর হজরত সৈয়দ হুমায়ূন কবীর দল-মত নির্বিশেষে সকলকে ইসলাম প্রতিষ্ঠার শান্তিপূর্ণ প্রচেষ্টায় শামিল হওয়ার আন্তরিক আহবান জানান এবং এ লক্ষ্যেই তিনি ২০২১ ইং সালের মার্চ মাসের শেষ ১০ দিন দেশের বিভাগীয় শহরসহ কতিপয় জেলা শহর সমূহে সফর করবেন।

উক্ত আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন জনাব মুহাম্মাদ ইয়াছিন, মুহাম্মাদ ইউসূফ আলী, আমীর হোসাইন, আজমুল হক, নুরুদ্দীন আহমেদ, সেলিম মোল্লা, আসাদুজ্জামান, মুহাম্মাদ আলী জিন্নাহ্, আবু বকর সিদ্দীক, হাফিজুর রহমান ও সাইফুল ইসলাম প্রমূখ।

“ইসলামী সমাজ” এর আমীর সাহেবের বিভিন্ন বিভাগীয় শহর এবং জেলা শহরসমূহে সফর সুচি :

২১ মার্চ ২০২১ ইং রবিবার সকাল ১১টায় পাবনা, বিকাল ৪ টায় রাজশাহী এবং রাত্রী যাপন বগুড়া জেলা শহর ইসলামী সমাজের অফিস।
২২ মার্চ ২০২১ ইং সোমবার সকাল ১১ টায় বগুড়া জেলা শাখায় পরিকল্পিত আলোচনা সভা শেষে দুপুর ১টায় গোবিন্ধগঞ্জ, গাইবান্ধা এবং বিকাল ৫ টায় রংপুর।
২৪ মার্চ ২০২১ ইং বুধবার সকাল ১০ টায় নরসিংদী জেলা শহর, বিকাল ৪টায় সিলেট এবং রাত্রী যাপন কিশোরগঞ্জ।
২৫ মার্চ ২০২১ ইং বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় কিশোরগঞ্জ জেলা শাখায় পরিকল্পিত আলোচনা সভা শেষে বিকাল ৩টায় ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহরে ইসলামী সমাজের আলোচনা সভায় যোগদান করবেন।
২৬ মার্চ ২০২১ ইং শুক্রবার বিকাল ৩টায় বাংলাদেশ ফটো জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন মিলনায়তনে ইসলামী সমাজ ঢাকা মহানগর শাখার আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখবেন।
২৯ মার্চ ২০২১ ইং সোমবার সকাল ১০টায় কুমিল্লা জেলা শহর এবং বিকাল ৩টায় চট্রগ্রাম মহানগর ইসলামী সমাজের আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখবেন।
৩০ মার্চ ২০২১ ইং মঙ্গলবার সকাল ১০টায় রাজবাড়ী জেলা শহর ও বিকাল ৩টায় বরিশাল এবং রাত্রী যাপন গোপালগঞ্জ।
৩১ মার্চ ২০২১ ইং বুধবার সকাল ৯টায় গোপালগঞ্জ ইসলামী সমাজের পরিকল্পিত আলোচনা সভা শেষে দুপুর ১২টায় খুলনা শহর এবং বাদ মাগরিব চুয়াডাঙ্গা পৌঁছবেন ইনশাআল্লাহ।
কর্মসূচী বাস্তবায়নে সরকার, প্রশাসন ও দেশবাসী সকলের সহযোগীতা প্রত্যাশা করে বিশেষ সাহায্য লাভের জন্য আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের নিকট প্রার্থনা করছি। আমীন!

মানবতার কল্যাণে বার্তাটি শেয়ার করুন-

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *