সমাজ ও রাষ্ট্রে মানবরচিত ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত থাকায় দুর্নীতি ও সন্ত্রাস সমাজের রন্ধ্রে রন্ধ্রে ছড়িয়ে পড়েছে।

ইসলামী সমাজ” এর আমীর হযরত সৈয়দ হুমায়ূন কবীর বলেছেন, সমাজ ও রাষ্ট্রে মানবরচিত ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত থাকায় জাতির মানুষ বিভিন্ন ইস্যুতে বিভক্ত হয়ে সংঘাত ও সংঘর্ষে লিপ্ত; দুর্নীতি ও সন্ত্রাস সমাজের রন্ধ্রে রন্ধ্রে ছড়িয়ে পড়েছে; রাজনৈতিক অঙ্গনে দেখা দিয়েছে চরম অস্থিরতা, অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও অগ্রগতি হুমকির মুখে এবং মানবাধিকার চরমভাবে ভুলুণ্ঠিত হচ্ছে। তিনি বলেন, দেশ ও জাতির এ নাজুক পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের একমাত্র উপায় হচ্ছে সকল ধর্মের লোকদের জন্য যার যার ধর্ম পালনের সুযোগ রেখে সমাজ ও রাষ্ট্র পরিচালনায় আল্লাহ প্রদত্ত জীবন ব্যবস্থা ইসলাম প্রতিষ্ঠা করা।শ্রীমন্ত টাউন হল,চুয়াডাঙ্গা

জনাব মুহাম্মদ আলী জিন্নাহর সভাপতিত্বে চুয়াডাঙ্গা শ্রীমন্ত টাউন হলে আজ বিকাল ৪.০০ ঘটিকায় “সমাজ ও রাষ্ট্রে ইসলাম প্রতিষ্ঠায় আল্লাহর রাসুল হযরত মুহাম্মদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) এর প্রদর্শিত পদ্ধতি বিষয়”-এ অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে “ইসলামী সমাজ” এর আমীর হযরত সৈয়দ হুমায়ূন কবীর গণতন্ত্রের নির্বাচন কিংবা সন্ত্রাস ও বোমাবাজি ইসলাম প্রতিষ্ঠার পদ্ধতি নয় এ কথার উল্লেখ করে বলেন, সমাজ ও রাষ্ট্রে ইসলাম প্রতিষ্ঠার পদ্ধতি হচ্ছে সকল মানুষকে জীবনের সকল ক্ষেত্রে আল্লাহকেই একমাত্র রব- সার্বভৌমত্ব, আইন-বিধান ও কর্তৃত্বের মালিক মানা, তাঁরই দাসত্ব, আইনের আনুগত্য এবং তাঁরই রাসুল হযরত মুহাম্মদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) এর শর্তহীন অনুসরণ ও অনুকরণের অঙ্গীকারের দাওয়াতের মাধ্যমে সমাজ গঠনের আন্দোলন চালিয়ে যেতে থাকা এবং এক্ষেত্রে সকল প্রকার বিরোধিতা ও ষড়যন্ত্রের মোকাবিলায় ছবর ও ক্ষমার নীতিতে অটল থেকে আল্লাহর উপর পূর্ণ নির্ভর করা। তাহলেই চুড়ান্ত পর্যায়ে আল্লাহ ঈমানদার সৎ কর্মশীলদেরকে রাষ্ট্রীয় শাসন ক্ষমতা দান করবেন। আর তখনই ঈমানদারগণ সমাজ ও রাষ্ট্রে আল্লাহর আইন চালু করবে। তিনি বলেন, এটাই ইসলাম প্রতিষ্ঠায় রাসুল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) এর প্রদর্শিত পদ্ধতি।

জনাব মুহাম্মদ আবু শামাহ’র পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে “ইসলামী সমাজ” এর আমীর হযরত সৈয়দ হুমায়ূন কবীর সকলকে উদ্দেশ্য করে বলেন, “ইসলামী সমাজ” আল্লাহর রাসুল হযরত মুহাম্মদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) এর প্রদর্শিত শান্তিপূর্ণ পদ্ধতিতে সমাজ ও রাষ্ট্রে ইসলাম প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। দুনিয়ায় কল্যাণ ও শান্তি, আখিরাতে জাহান্নাম থেকে মুক্তি পেতে সকলকে তিনি “ইসলামী সমাজ” এর দাওয়াতী আন্দোলনে শামিল হওয়ার আহ্বান জানান। আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় নেতা মুহাম্মদ ইয়াছিন ও সোলায়মান কবীর এবং “ইসলামী সমাজ” এর সদস্য জনাব ডাঃ আছহাবুল কবীর হেলাল, মুহাম্মদ আলম প্রমুখ।

মানবতার কল্যাণে বার্তাটি শেয়ার করুন-

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *